তোমাকে কোথায় যেন দেখেছি

ক্লাসে নতুন একজন ম্যাডাম এসেছিলেন সেদিন। ম্যাডাম ক্লাস শেষ করে চলে যাওয়ার পর প্রিয়ন্তি বললো, ‘জানিস! এই ম্যাডামকে না আমার খুব চেনা চেনা লাগছে। মনে হচ্ছে আগে কোথাও দেখেছি।’

তানিশা দুষ্টুমির স্বরে বললো, ‘কে জানে কবে কী গোলমাল করতে গিয়ে দেখে পালিয়ে আসছিস। ম্যাডাম যা কড়া!’

সবাই একযোগে হেসে উঠলো তানিশার কথায়। প্রিয়ন্তির করুণ হাল দেখে সবাইকে থামিয়ে দিয়ে আয়েশা বললো, ‘ফাজলামো না রে। এমন তো আমারও হয়—প্রথমবার কাউকে দেখছি অথচ মনে হয় তাকে আমি আগে কোথাও দেখেছি।’

আয়েশার কথার পর আরও দুয়েকজনেরও তাদের অভিজ্ঞতার মনে পড়লো বোধহয়। একেকজন একেক রকম অভিজ্ঞতার কথা বলতে শুরু করলো। কেউ হয়তো কোথাও প্রথমবারের মতো বেড়াতে গিয়েছে, কিন্তু সে জায়গায় উপস্থিত হয়ে কিছুটা বিভ্রান্তিতে পড়ে গিয়েছে। কারণ তার মনে হচ্ছে এই জায়গায় সে আগেও কখনো এসেছে। জায়গাটা পরিচিত পরিচিত লাগছে। কেউ আবার বলছে, কোনো দৃশ্য বা ঘটনা দেখে তার মনে হয়েছে সে পূর্বেও এমন ঘটনার সম্মুখীন হয়েছে, কিন্তু ব্যাপারটা পুরোপুরি মনে করতে পারছে না। নিশ্চিত হতে পারছে না।

ওদের এত এত অভিজ্ঞতার বর্ণনা শুনে আমি আর কিছু বললাম না। কারণ এমন ঘটনা মানে একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে বলে মনে হওয়ার ব্যাপারটা আমার সাথে প্রায়ই ঘটে। কেউ কোনো কথা বলছে, কোনো কারণে হাসছে অথবা অন্যকোনো কাজ করছে—আমার তখন কয়েক সেকেন্ডের জন্য মনে হয় ঠিক এই দৃশ্যটাই আমি আগেও দেখেছি। হয়তো স্বপ্নে নয়তো বাস্তবে। কিন্তু আসলেই দেখেছি কিনা সে ব্যাপারেও দ্বিধা কাজ করে।

সেদিন সারাদিন ব্যাপারটা মাথায় ঘুরতে লাগলো। কারণ আমি ভাবতাম ব্যাপারটা বোধহয় শুধু আমার সাথেই ঘটে। কিন্তু যখন জানলাম অনেকেই এমন ঘটনার সম্মুখীন হয়, তখন ব্যাপারটা আমার মনে বেশ আগ্রহ জাগালো।

বাসায় ফিরেও ব্যাপারটা মাথা থেকে সরলো না। সন্ধ্যায় হোম টিউটরের কাছে পড়তে বসে ভাবলাম তাকে জিজ্ঞেস করা যাক। আমার প্রশ্ন শুনে ম্যাডাম হাসলেন। বললেন, এটা তো খুবই কমন একটা টার্ম। এই ধরণের সিচুয়েশনকে বলে ‘দেজা ভ্যু’। নাম শুনে ভ্রু কুঁচকে ম্যাডামের দিকে তাকালাম। ম্যাডাম আবারও হাসলেন। বললেন, কী বিচ্ছিরি একটা শব্দ, না? তারপর বুঝিয়ে বললেন সবটা।

দেজা ভ্যু (Déjà vu) একটি ফরাসি শব্দ। ইংরেজিতে বললে, ‘Already Seen’। যার সহজ বাংলা—ইতোমধ্যে দেখা। দেজা ভ্যু’র প্রতিশব্দ পারামনেসিয়া যা এসেছে গ্রীক শব্দ ‘প্রেমনেসিয়’ থেকে।

কোনো ব্যক্তি যখন অনুভব করেন যে ‘এই দৃশ্যটির বোধহয় পুনরাবৃত্তি হচ্ছে, আগে একবার আমার সাথে হুবহু এমন কিছু হয়েছিলো’, কিন্তু তিনি নিশ্চিত হতে পারছেন না যে আসলেই হয়েছিলো কি না তাহলে এটাই প্রেমনেসিয়। অর্থাৎ আমাদের ‘দেজা ভ্যু’।

দেজা ভ্যু অত্যন্ত স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। সাউদার্ন মেথোডিস্ট ইউনিভার্সিটির মনোবিজ্ঞানী এলান এস ব্রাউন ২০০৩ সালের একটা অনুসন্ধানের আলোকে বলেন, প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষেরই জীবনে একবার হলেও দেজা ভ্যু জাতীয় ঘটনার অভিজ্ঞতা হয়ে থাকে।
এখন কথা হচ্ছে, সংজ্ঞা তো জানা গেলো কিন্তু ব্যাপারটা কী? কেন ঘটে থাকে?

মস্তিষ্কের স্নায়ুতন্ত্রের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় কোনোভাবে ব্যতিক্রম কিছু হলে একটা শক্তিশালী সংবেদনশীলতার সৃষ্টি হয়, তখন বর্তমানের ঘটনাকে অতীতের সাথে মেলানোর জন্য মস্তিষ্ক সচেষ্ট হয়।

আবার মানব-মস্তিষ্ক সব তথ্য হুবহু সংরক্ষণ করতে পারে না, যেভাবে কম্পিউটার পারে। স্মৃতিতে কিছু থেকে যায়, কিছু অংশ মুছে যায় অথবা অস্পষ্ট হয়ে যায়। কোনো বিশেষ স্মৃতির কোনো অংশের সাথে বর্তমানের কোনো ঘটনার মিল পেলে মস্তিষ্ক সাময়িকভাবে উত্তেজিত হয়ে পড়ে। তখন পুরো স্মৃতিটা মনে করতে পারে না বলে মনে হতে থাকে যে—‘এরকম কিছু আমার সাথে আগেও হয়েছে।’ কিন্তু কোথায়, কবে বা পুরো স্মৃতিটা কী—তা আর মস্তিষ্ক পুনরুদ্ধার করতে পারে না।

ইন্টারনেটে এ ধরনের ব্যাখা দেখে আমি আমার দেখা বিচ্ছিন্ন দুটি ঘটনা মেলাতে পেরেছিলাম।
প্রথম ঘটনা বলি। ছোটবেলায় গ্রামে বেড়াতে গেলে আমরা দলবেঁধে চাচাদের সাথে দোকানে যেতাম। চাচারাও ভাতিজা-ভাতিজিদের আবদার মিটিয়ে বাড়ির পথ ধরিয়ে দিতেন। এমনই একবার আমরা বাড়ি ফিরছি। নিজেদের হৈচৈয়ে মেতে গিয়ে খেয়ালই করিনি ছোটবোন কখন হাত থেকে ছুটে গেছে। ওর বয়স তখন দেড় কি দুবছর। হাঁটতে হাঁটতে ও পাশের গ্রামে চলে গিয়েছিলো। যারা পেয়েছে তারা মাইকিং করাতে ওকে ফিরে পাওয়া গিয়েছিলো।

দ্বিতীয় ঘটনাটি ওই ঘটনার প্রায় তিন বছর পর। আমার ছোট ফুপির বিয়েতে ফুপির শ্বাশুড়ি আমার আম্মুকে দেখে বারবার বলছিলেন, ‘আপনার চেহারা আমার খুব চেনা চেনা লাগছে। মনে হচ্ছে আগে কোথাও দেখেছি।’

তারপর একদিন কথাচ্ছলে আমার হারিয়ে-ফিরে-পাওয়া-বোনের সেই গল্পটি উঠতেই ফুপির শ্বাশুড়ি বললেন, ‘সুফিয়ান (আমার চাচা) ওকে আনতে গিয়েছিলো? ওটা তোমার বোন ছিলো? ওকে তো আমরাই পেয়েছিলাম।’

আমার ঝট করে মনে পড়ে গেলো ফুপির বিয়ের দিনের কথা। আম্মুর সাথে আমার ছোটবোনের চেহারার কিছুটা মিল আছে। ওকে দেখেছিলেন বলেই কি আমার আম্মুকে উনার চেনা চেনা লাগছিলো?

Facebook Comments